চট্টগ্রামে শিবিরের ৫ ক্যাডার অস্ত্রসহ গ্রেফতার

 সিটিজেন নিউজ ডেস্ক
আপডেট: ২০১৯-১০-২৫ , ০৫:০৯ পিএম

চট্টগ্রামে শিবিরের ৫ ক্যাডার অস্ত্রসহ গ্রেফতার ছবি: ইন্টারনেট

সিটিজেন নিউজের প্রধান সম্পাদক রোমান শেখকে শিবির ক্যাডারা হত্যার হুমকি দেয়াকে কেন্দ্র করে পুলিশ তদন্ত শুরু করলে কেঁচো খুড়তে সাপ রেবিয়ে আসে। বেরিয়ে আসে বিপুল পরিমান অস্ত্রসহ চাঁদাবাজ জামায়াত-শিবিরের চট্টগ্রামের ৫ মূল ক্যাডার। বায়েজিদ থানার একটি অভিযানিক দল বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর) গভীর রাতে বায়েজিদ থানাধীন ওয়াজেদিয়াস্থ বাবুল সাহেবের মাঠে এলাকায় শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। এসময় তাদের কাছ থেকে ৫টি একনলা বন্দুক, ৫টি কার্তুজ, স্টীলের তৈরী ১টি ছোরা, স্টীলের তৈরী ২টি চাপাতি উদ্ধার করা হয়।

আটককৃতরা হলো-মোঃ আব্দুল কাদের সুজন (২৯),মোঃ রুহুল আমিন (২১),মোঃ জাবেদ প্রঃ ভাইনে জাবেদ (৩১),মোঃ তুহিন প্রঃ তুফান (২৮) ও রায়হান আহম্মেদ রনি (২০)।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার উপ-পরিদর্শক গোলাম মোঃ নাসিম সিটিজেন নিউজকে জানান, সিএমপির উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে বৃহস্পতিবার রাতে বায়েজিদ থানাধীন ওয়াজেদিয়াস্থ বাবুল সাহেবের মাঠে অভিযান চালিয়ে ৫জনকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৫টি একনলা বন্দুক, ৫টি কার্তুজ, স্টীলের তৈরী ১টি ছোরা, স্টীলের তৈরী ২টি চাপাতি উদ্ধার করা হয়।

গত ২২ সেপ্টেম্বর, ‘কাতার থেকে শিবির ক্যাডার ম্যাক্সন-সরওয়ারের চাঁদাবাজি’ শিরোনামে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করে অনলাইন সংবাদ মাধ্যম সিটিজেন নিউজ.কম.বিডি। সংবাদটি চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) শীর্ষ কর্মকর্তাদের নজরে আসে।  

ওই সংবাদ প্রকাশের পর থেকে নিউজ পোর্টালে প্রধান সম্পাদকের মোবাইল ফোনে শিবির ক্যাডার সরওয়ার ও ম্যাক্সন কাতার থেকে এবং চট্টগ্রাম থেকে কয়েকজন বিভিন্ন সময়ে হত্যার হুমকিসহ পত্রিকার অফিস ও বাসায় হামলা চালানোর হুমকি দেয়।

এ ঘটনায় সাংবাদিক রোমান শেখ বায়েজিদ বোস্তামী থানায় বিস্তারিত জানিয়ে একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। এবং সিএমপি কমিশনারসহ উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের অবহিত করেন। পরে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন ‘সাংবাদিককে শিবির ক্যাডার সরওয়ার-ম্যাক্সনের হুমকি’ শিরোনামে প্রকাশ করা হয়।

সংবাদ প্রকাশের পর সিএমপির শীর্ষ কর্মকর্তারা শিবির ক্যাডার ম্যাক্সন ও সরওয়ার সম্পর্কে সিটিএসবি এবং নগরীর থানাগুলোতে খোঁজ-খবর নেয়। পরে কাতারে অবস্থানরত শিবির ক্যাডার ম্যাক্সন ও সরওয়ারকে ইন্টারপোলের মাধ্যেমে দেশে ফিরিয়ে শাস্তির ব্যবস্থা করতে কার্যক্রম শুরু করে।

এ বিষয়ে সিটিএসবির উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) ওয়ারিশ সিটিজেন নিউজকে জানান, শিবির ক্যাডার ম্যাক্সন ও সরওয়ারের চাঁদাবাজির বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশের পর থেকে সংশ্লিষ্টদের তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়। ইতিমধ্যে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনতে কার্যক্রম শুরু হয়েছে বলে জানান তিনি।

সিটিজেন নিউজ ওই প্রতিবেদনে ম্যাক্সন ও সরওয়ারের চট্টগ্রামে থাকা কিছু অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের নামও প্রকাশ করে। যারা শিবির ক্যাডার সাজ্জাদ, ম্যাক্সন ও সরওয়ারের নির্দিশে চট্টগ্রাম থেকে বিভিন্ন প্রবাসী ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে মোটা অংকের চাঁদা আদায় করতো বলে তথ্য রেবিয়ে আাসে।  

এমন সংবাদ প্রকাশের পর কয়েকজন ব্যবসায়ী তাদের কাছে চাঁদা দাবি করছে করছে বলে বায়েজিদ বোস্তামী থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন।

এ বিষয়ে বায়েজিদ বোস্তামী থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান খোন্দকার সিটিজেন নিউজকে জানান, কাতার থেকে শিবির সন্ত্রাসী ম্যাক্সন ও সরওয়ারের চাঁদাবাজির সংবাদ প্রকাশের পর থেকে পুলিশ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে। তদন্তে সাংবাদিক রোমান শেখকে হুমকি দেয়াসহ কয়েকজন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে চাঁদা নেয়ার বিষয়ে সতত্য পাওয়া যায়।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ৩টার দিকে উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে বায়েজিদ থানাধীন ওয়াজেদিয়াস্থ বাবুল সাহেবের মাঠ থেকে অস্ত্রসহ ৫জনকে গ্রেফতার করা হয়।

ওসি বলেন, আটককৃতদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও ডাকাতি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নাম্বার ৫২।

এ মামলায় অন্যান্য অন্যতম আসামীরা হলো- মোঃ সরওয়ার ওরফে বাবলা, নূর নবী ওরফে ম্যাক্সন ও ইমতিয়াজ সুলতান ইকরাম।

এ বিষয়ে বায়েজিদ জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার পরিত্রান তালুকদার সিটিজিন নিউজকে জানান, চাঁদাবাজি সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন প্রকাশের পর থেকে পুলিশ এ বিষয়ে তদন্ত শুরু করে। তদন্তে জানা যায়,শিবির সন্ত্রাসী সরওয়ার, ম্যাক্সন ও সাজ্জাদের মাধ্যমে চট্টগ্রামে তাদের পালিত কিছু সন্ত্রাসী নগরীর বিভিন্ন এলাকায় চাঁদাবাজি করছে-পুলিশ এমন তথ্য পায়। পরে অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ ৫জনকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান তিনি।

সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সিএমপির কমিশনার জিরো টলারেন্স ঘোষণা উল্লেখ করে সিএমপি (উত্তর জোন) উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) বিজয় বসাক সিটিজেন নিউজকে বলেন, নগরীর বিভিন্ন থানা এলাকায় প্রবাসীদের কাছ থেকে চাঁদা চাওয়া হচ্ছে এমন সংবাদ ভিত্তিতে পুলিশ তথ্য সংগ্রহ শুরু করে। পরে বিভিন্ন তথ্য ভিত্তিতে বায়েজিদ থানাধীন ওয়াজেদিয়াস্থ বাবুল সাহেবের মাঠে অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ জামায়াত-শিবিরের একটি চক্রকে গ্রেফতার করা হয়।

জনসাধারণের প্রতি বিজয় বসাকের বার্তা: অস্ত্র, মাদক, ছিনতাই, চাঁদাবাজিসহ কোনও ধরনের অপরাধের তথ্য থাকলে আপনাদের নিকটস্থ থানা পুলিশকে অবহিত করুন। আপনার নাম-ঠিকানা গোপনসহ আপনার নিরাপত্তা দিবে পুলিশ। এ ধরনের তথ্য দিয়ে সমাজ ও রাষ্ট্রের অপরাধ দমন ও নির্মূলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীকে সহায়তা করুন।

 

আরও পড়ুন : 

‘কাতার থেকে শিবির ক্যাডার ম্যাক্সন-সরওয়ারের চাঁদাবাজি’

‘সাংবাদিককে শিবির ক্যাডার সরওয়ার-ম্যাক্সনের হুমকি’